বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:২২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কামতাল ডাক সমাজ কবরস্থান বাঘে মুসাফির মোহাম্মদিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসায় কবরবাসীদের জন্য দোয়া। হাজি সফিউল্লাহ এর পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঈদ সামগ্রী বিতরন। সনমান্দীতে নামাজ পড়ে পুরস্কার পেলো অর্ধশতাধিক যুবক। সোনারগাঁওয়ে যানজট নিরসনে কাজ করছে পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি সোনারগাঁ সিটি প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া আইন সহায়তা কেন্দ্র আসক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ে ১৯ কোটি টাকার সড়ক উন্নয়ন কাজের কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন সোনারগাঁকে পরিচ্ছন্ন হিসেবে গড়ে তুলতে ৭ শতাধিক বিডি ক্লিন স্বেচ্ছাসেবীদের শপথ বন্দরে জনকল্যাণ সাংস্কৃতিক  সংঘের উদ্যোগে  ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত   উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল ওমর বাবুর নির্বাচনী উঠান বৈঠক দোয়া ও মাহফিল অনুষ্ঠিত

সিংহের গর্জনে ব্যাটিং বিপর্যয় টাইগারদের

  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৬৯ বার পঠিত

নিউজ ডেস্কঃ-
এশিয়া কাপ মিশনে টাইগারদের প্রথম পরিক্ষা ছিলো আজ স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। নিয়মিত একাদশের কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় ছাড়াই বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামে শ্রীলঙ্কা। তাই ধারণা করা হয়েছিলো অভিজ্ঞতায় বিবেচনায় লঙ্কানদের ডমিনেট করে খেলবে সাকিব বাহিনী। কিন্তু ব্যাটিং বিপর্যয়ে প্রথম ইনিংসে সিংহের গর্জনের কাছে ধরাশায়ী টাইগাররা। শ্রীলঙ্কার পাল্লাকেলে ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন টাইগার কাপ্তান সাকিব আল হাসান। শুরুতে অধিনায়কের ব্যাটিং নেওয়ার সিদ্ধান্ত ভুল প্রমাণ করেন টাইগার ব্যাটাররা। সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান পর্যন্ত যেতে পারেন বাংলার ব্যাটাররা। জিততে হলে শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন ১৬৫ রান।

টসে জিতে ব্যাট হাতে ইনিংসের সূচনা করতে আসেন অভিষিক্ত তানজিদ হাসান তামিম ও দীর্ঘদিন জাতীয় দলে আসা যাওয়া করা নাঈম শেখ। ব্যাট হাতে ব্যার্থ ছিলেন দুজনেই। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই থিকসেনার বলে এলবিডব্লুর শিকার হয়ে শূন্য রানেই ফিরে যান তানজিদ তামিম। স্মরণীয় করে রাখতে পারেননি নিজের অভিষিক্ত ম্যাচ। একে একে বাজে শর্টের মাশুল দিতে থাকেন নাঈম শেখ, সাকিব আল হাসানরাও। এদিন ইনিংস লম্বা করতে ব্যর্থ করতে টপ অর্ডার থেকে শুরু করে লো অর্ডার সবাই। মাঝে দিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটকে টেস্ট বানিয়ে রানের দেখা পান তিনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত।

শান্তর ইনিংসে ভর করেই ১৬৪ রানের টার্গেটে পোঁছায় বাংলাদেশ। সাত চারের সাহায্যে ১২২ বলে ৮৯ রানের এক নরবড়ে ইনিংস খেলেন শান্ত। মূলত শান্তর ধীরে ব্যাটিংয়ের খেশারত দিতে হয়ে মুশফিক ও মেহেদী হাসান মিরাজকে। এক ব্যাটার স্লো স্টাইকরেটে খেললে প্রেশার তৈরি হয় অন্য ব্যাটারের উপর। তাই শান্তর এমন ইনিংস দলের উপকারের চেয়েও বয়ে আনে অপকার।

বল হাতে লঙ্কানদের মধ্যে সর্বোচ্চ মাহেশ পাথিরানা নেন চার উইকেট। থিকসেনা নেন দুইটি উইকেট। এক উইকেট করে নেন অধিনায়ক সানাকাও ধনজয়া ডি সিলভা।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর