শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নিখোঁজের ৩ দিন পর বুড়িগঙ্গায় মিলল ব্যবসায়ীর লাশ ১৯৫২’র ভাষা আন্দোলনের সকল শহীদদের স্মরনে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাল সোনারগাঁও থানা আওয়ামিলীগ ১৯৫২’র ভাষা আন্দোলনের সকল শহীদদের প্রতি দেলোয়ার হোসেনের গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি স্মার্ট সোনারগাঁও বিনির্মানের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত স্মার্ট সোনারগাঁও বিনির্মানের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ে ৭ বছরের সাজাপাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার এসএসসি পরীক্ষার বিশেষ পরামর্শ: ভালো পরীক্ষা ভালো ফল নিশ্চিত করবে সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষা সপ্তাহ ও ক্লাব ফেষ্টিভ্যাল-২০২৪। দূষণের বিরুদ্ধ গণস্বাক্ষর কর্মসূচীর প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ে চালককে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে,অটোবাইক ছিনতাই

সোনারগাঁওয়ে বালু ভরাট করে ফসলি জমি দখলের অভিযোগ, বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৩০ বার পঠিত

সময় বার্তা ৭১ ডটকমঃ-
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে পিরোজপুর ইউনিয়নের কান্দারগাঁও ও ছয়হিস্যা এলাকায় কয়েক শত একর ফসলি জমিতে অবৈধভাবে ৬টি ড্রেজার বসিয়ে বালু ভরাট করে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে।

এ সময় কান্দারগাঁও, ভবনাথপুর, ভাটিবন্দর, রতনপুর জৈনপুর ও ছয়হিস্যাসহ ৬-৭টি গ্রামের লোকজন বিক্ষুব্ধ হয়ে তাদের জমি রক্ষা করতে ঘটনাস্থলে গিয়ে বালু ভরাটের ড্রেজারের উপর হামলা চালিয়েছে।

৪ ডিসেম্বর ২০২৩ ইং সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের পূর্ব কান্দারগাঁও গ্রামের মৃত আজগর আলী সরকারের ছেলে আব্দুর রহমান সরকার (৭৫), ও একই এলাকার তারেক সরকার, শাহাজালাল, মাজারুল ইসলাম এবং কামাল মোল্লাসহ একাধিক এলাকাবাসী জানান, একটি শিল্প প্রতিষ্ঠানের পক্ষ নিয়ে পশ্চিম কান্দারগাঁও গ্রামের মৃত মমতাজ উদ্দিনের ছেলে চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামী পলিথিন জাকিরের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের একটি ভূমিদস্যূ বাহিনীর দল মেঘনা নদীতে ৬টি ড্রেজার বসিয়ে গত ৫-৬দিন যাবত অবৈধভাবে জোর পুর্বক বালু ভরাট করে দখল করে নিচ্ছে এলাকাবাসীর কয়েক শত একর ফসলি জমি।

এ ঘটনায় গত শনিবার (২ ডিসেম্বর) এলাকাবাসীর পক্ষে আব্দুর রহমান সরকার বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় ভূমিদস্যূ পলিথিন জাকির ও তার ছোট ভাই আল আমিন, দুধু মিয়া এবং শহীদ মিয়াসহ ৭-৮জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জাকির হোসেন বলেন, আমি আমার নিজের জায়গায় সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ করিতেছি, কারো জায়গায় বালু ভরাটের কাজের সঙ্গে আমি জড়িত না।

অন্যদিকে সোনারগাঁও থানার তদন্তকারি কর্মকর্তা এস আই মোঃ ইমরান হোসেন বলেন, আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে বালু ভরাট কাজ বন্ধ করে দিয়ে আসছি এবং উভয় পক্ষকে তাদের জমির মালিকানা কাগজপত্র নিয়ে ওসি স্যারের সঙ্গে দেখা করে মিমাংসা করতে বলেছি।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর