শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:১০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বন্দরে অটোরিকশা ও কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই অটোচালক নিহত সোনারগাঁয়ে বিচার শালিসে সন্ত্রাসী হামলা দলিল লেখক গুলিবিদ্ধ সোনারগাঁয়ে সাবেক ইউপি সদস্য মোর্শেদার ওপর হামলা নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁয়ে মল্লিকপাড়া থেকে অজ্ঞাত নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মোঃ মনির হোসেন’র জমকালো আয়োজনে ৫৭ তম জন্মদিন পালিত  স্যাটেলাইট টেলিভিশনের সোনারগাঁয়ের কর্মরত জার্নালিস্ট ফোরাম” এর আত্মপ্রকাশ সোনারগাঁয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা মেঘনা টোল প্লাজা এলাকায় চলন্ত বাসে আগুন সোনারগাঁওয়ে ময়লার স্তুপ পরিস্কার করলো বিডি ক্লিন সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজর স্কাউট গ্রুপের সাফল্যে অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত স্কাউট ও সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন

সোনারগাঁয়ে বিচার শালিসে সন্ত্রাসী হামলা দলিল লেখক গুলিবিদ্ধ

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৯ জুন, ২০২৪
  • ১২৩ বার পঠিত

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বিচার শালিসে প্রকাশ্য দিবালোকে দলিল লেখক মফিজুর রহমান রতনকে(৩৩) হত্যার উদ্দেশ্যে গুলি চালিয়ে ও কুপিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষ।
শনিবার(২৯ মার্চ-২০২৪) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মাঝেরচর এলাকায় গ্রাম্য শালিসে এ ঘটনা ঘটে।

আহত দলিল লেখক মফিজুর রহমান রতন মহজমপুর উত্তর কাজীপাড়া এলাকার মৃত তোফাজ্জল হোসেন ভূইয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় বিচার শালিসে থাকা প্রত্যক্ষদর্শী মহজমপুর এলাকার কাজী আনোয়ার জানান,দলিল লেখক রতনের মায়ের নানীর বাড়ীর জমি নিয়ে মাঝেরচর জগন্নাদী এলাকার রাসেল আহম্মেদ খোকন গংদের সাথে বিরোধ চলে আসছিলো।আজ শনিবার বিকেলে ওই জমি নিয়ে গ্রাম্য শালিস বসে।সেখানে দলিল লেখক রতন উপস্থিত হলে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে পিস্তল ও বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাসেল আহম্মেদ খোকনের নেতৃত্বে রতনের ওপর হামলা চালায়।এসময় রাসেল আহম্মেদ খোকনের সহযোগী শাকিব রতনকে দাঁড়ালো দা দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে।পরবর্তীতে খোকনের আরেক সহযোগী শাহিন রতনকে হত্যার উদ্দেশ্যে পিস্তল দিয়ে গুলি করে।এসময় রতন বাঁচার জন্য সরে গেলে তার ডান হাতে গুলিবিদ্ধ হয়।এছাড়া খোকনের আরেক সহযোগী মেহেদী ও অজ্ঞাত ৪/৫ জন সন্ত্রাসী রতনের ওপর হামলা চালায়।
এসময় বিচার শালিসে উপস্থিত এডভোকেট কামরুল ইসলাম,আওয়ামীলীগ নেতা তাইজুদ্দীন তাজু,কাজী আনোয়ার,মোঃ ফারুক সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ আতঙ্কিত হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আহত দলিল লেখক রতনকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।
পরবর্তীতে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এ ঘটনায় অভিযুক্ত রাসেল আহম্মেদ খোকনের কাছে জানতে ফোন করলে তার ব্যবহৃত মুঠোফোন নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান আহত দলিল লেখক রতনের ভাই মো: মহসিন ভূইয়া।
সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এসএম কামরুজ্জামান বলেন,জামপুরে মারামারি হয়েছে শুনেছি কিন্তু গুলিবিদ্ধ হয়েছে এমন কোন ঘটনা আমার জানা নেই।তারপরও আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর